দেশজুড়ে বিশ্ব পর্যটন দিবস উদযাপন

- মনিটর অনলাইন রিপোর্ট Date: 27 September, 2021 | 425 Views
world_tourism_day_discussion_1.jpg
২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০২১ উপলক্ষে রাজধানীর আগারগাওয়ে পর্যটন ভবনে আলোচনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী, সচিব মোঃ মোকাম্মেল হোসেন, সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ হান্নান মিয়া, ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ - ছবিঃ মনিটর

ঢাকাঃ ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও পালিত হল বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০২১। এবারের বিশ্ব পর্যটন দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে “অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধিতে পর্যটন”।

বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০২১ উপলক্ষে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। ২৭ সেপ্টেম্বর বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে রাজধানীর আগারগাওয়ে পর্যটন ভবনে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের আয়োজনে দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্যের উপর আলোচনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “দেশে পর্যটন খাতে এখন পর্যন্ত মোট কর্মসংস্থান হয়েছে  প্রায় ৪০ লাখ মানুষের। ২০১৯ সালে দেশের জাতীয় আয়ে পর্যটন খাতের অবদান ছিল ৯৫০.৭ বিলিয়ন টাকা যা জিডিপির ৪.৩০ শতাংশ অদূর ভবিষ্যতে তা ৬ শতাংশে পরিণত হবে। জাতীয় অর্থনীতিতে পর্যটনের অবদান বৃদ্ধি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন পর্যটন আকর্ষণীয় এলাকায় দেশী-বিদেশী পর্যটকদের জন্য সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করা হচ্ছে। শুধুমাত্র কক্সবাজারেই তিনটি পর্যটন পার্ক তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। পার্ক তিনটির কাজ সমাপ্তির পর প্রতিবছরে এতে বাড়তি ২০০ কোটি মার্কিন ডলারের অর্থনৈতিক কার্যক্রমের সুযোগ সৃষ্টির পাশাপাশি ৪০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে। এছাড়া দেশের প্রান্তিক মানুষকে পর্যটন শিল্পে আরো বেশি করে সম্পৃক্ত করার জন্য আমরা বাংলাদেশের গ্রামীণ পর্যটন ও কমিউনিটি বেইজড পর্যটন উন্নয়নে কাজ করছি।“ 

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোকাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ হান্নান মিয়া, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ প্রমূখ।

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে রাজধানীর আগারগাওয়ে পর্যটন ভবনে আয়োজিত কুকিং শোর উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী- ছবিঃ মনিটর

আলোচনা অনুষ্ঠানের আগে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন পর্যটন ভবনে একটি কুকিং শোর আয়োজন করে। এবং আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে একটি ঘোড়ার গাড়ির র‌্যালির পর্যটন ভবনের সামনে থেকে যাত্রা শুরু করে রাজধানীর বিভিন্ন পর্যটন স্পট পরিভ্রমণ করে পর্যটন বিষয়ক প্রচারণা পরিচালনার পাশাপাশি মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে উদ্বুদ্ধ করার জন্য মাস্ক বিতরণ করে।

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই কুকিং শো ও ঘোড়ার গাড়ির র‌্যালির উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী।

রাজধানীর আগারগাওয়ে পর্যটন ভবনের সামনে র‌্যালির উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী ছবিঃ মনিটর

এছাড়া, বাদ্যযন্ত্রসহ ২০ টি সুসজ্জিত রিকশার একটি র‌্যালি রাজধানীর গুলশান-বারিধারা কূটনৈতিক এলাকায় বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে প্রচারণা চালায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ, টোয়াবসহ দেশের অন্যান্য পর্যটন অংশীজনগণ দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

পর্যটন নগরী কক্সবাজার ও কুয়াকাটার বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন ছাড়াও দেশের প্রতিটি জেলায় জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পর্যটন অংশীজনদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় এবং শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন থাকে।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে দেশের বিভিন্ন গণমাদ্ধমে আলোচনা অনুষ্ঠান ও টিভিসি প্রচার করা হয়।     

পর্যটন ভবন, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের সকল হোটেল-মোটেল, হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল, হোটেল সোনারগাঁও ও অন্যান্য তারকা মানের হোটেলগুলো বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে তাদের খাদ্য ও আবাসিক সেবা মুল্যে বিশেষ ছাড় প্রদান করবে ও আলোকসজ্জায় সজ্জিত হবে।

এছাড়াও, দেশের তিনটি এয়ারলাইন্স বিমান, নভএয়ার ও ইউএস-বাংলা যাত্রীদের মাঝে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে শুভেচ্ছা উপহার প্রদান করে।

Share this post

Also on Bangladesh Monitor

Subscribe Us

Please Subscribe and get updates in your inbox. Thank you.